সংযোগ আছে দূযোর্গ, মহামারিতে কোভিড ভয়াবহতায় রক্তের সন্ধানে নারীর অগ্রযাত্রায় শিশুর বিকাশে অক্সিজেন সেবায় চিকিৎসা সেবায়

সংযোগের সাথে, মানুষের পাশে

সংযোগের সাম্প্রতিক কার্যক্রম

সংযোগ মানুষের পাশে দাড়াচ্ছে। যেভাবে পারছে। আর এই প্রচেষ্টায় শামিল হয়েছেন মহৎপ্রাণ অসংখ্য মানুষ ও প্রতিষ্ঠান। এইসব ব্যাক্তি ও প্রতিষ্ঠানের সহযোগিতায় সংযোগ কাজ করে যাচ্ছে নিরন্তর। 

আভিনের চিকিৎসা সহায়তায় সংযোগ পরিবার

ভিকারুননেছা স্কুলের দশম শ্রেণীর শিক্ষার্থী আভিনের চিকিৎসা সহায়তায় ওর পরিবারের পাশে দাঁড়িয়েছে সংযোগ।

সংযোগ অমর একুশে প্রতিযোগিতা অনুষ্ঠিত

দেশের প্রায় এক হাজার শিশুর অংশগ্রহনে সংযোগের অমর একুশে প্রতিযোগিতা অনুষ্ঠিত হয়েছে।

নেত্রকোনায় রবিউল আর ফজলু মিয়া পেলো সংযোগ ঘর

১৬ ডিসেম্বর ২০২০ সালে নেত্রকোনায় পুড়ে যায় রবিউল আর ফজলু মিয়ার ঘর। সংযোগ তাদের জন্য ঘর তৈরি করে দিয়েছে সম্প্রতি।

সংযোগের
স্বপ্নযাত্রা

সংযোগ মানুষের পাশে দাঁড়াতে চায়। তার সব দরকারে। সব প্রয়োজনে।

সংযোগ বন্ধুদের কথা

সংযোগ ব্লগ

মে মাসে সংযোগের অক্সিজেন সেবা পেল ১’শ জন

চলতি বছরের মে মাসে সামাজিক সংগঠন সংযোগঃ কানেক্টিং পিপল-এর অক্সিজেন সেবা পেয়েছে মোট ১’শ জন। এরমধ্যে ঢাকা শহরে ৫৬ জন ও ঢাকার বাহিরে সেবা পেয়েছে ৪৪জন। বৃহস্পতিবার গণমাধ্যমে প্রেরিত এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানায় সংযোগ।

বিস্তারিত

অক্সিজেন সেবায় সংযোগের পাশে সিদরা ফাউন্ডেশন

করোনা ভাইরাসের দ্বিতীয় ঢেউয়ে অক্সিজেন সঙ্কট মোকাবেলায় সামাজিক সংগঠন ‘সংযোগঃ কানেক্টিং পিপল’ এর অক্সিজেন হাবে ১০টি অক্সিজেন সিলিন্ডার ও ১টি অক্সিজেন কন্সেনট্রেটর দিয়েছে সিদরা ফাউন্ডেশন।

বিস্তারিত

রক্তদানে একসাথে সংযোগ-সন্ধানী

মানবসেবায় রক্তদান কর্মসূচিতে একসাথে কাজ করবে সামাজিক সংগঠন সংযোগঃ কানেক্টিং পিপল ও সন্ধানী। শুক্রবার ৪ঠা জুন সংযোগ : কানেক্টিং পিপল ও সন্ধানীর মধ্যে একটি সমঝোতা স্মারক স্বাক্ষরিত হয়েছে।

বিস্তারিত

শ্যামলীতে রিক্সাচালকদের আম উপহার দিলো সংযোগ

চলতি বছরের আমঋতুতে ঢাকা শহরের ১ হাজার রিক্সাচালককে ৫কেজি করে আম উপহার দেওয়ার উদ্যোগ নিয়েছে সামাজিক সংগঠন সংযোগঃ কানেক্টিং পিপল । কর্মসূচির অংশ হিসেবে বৃহস্পতিবার ৩রা জুন রাজধানীর শ্যামলীতে ২০ জন রিক্সাচালককে ৫কেজি করে আম উপহার দিয়েছে সংযোগ।

বিস্তারিত

রিক্সাচালকদের আম উপহার দিলো সংযোগ

রহিম মিয়া (৫০), বাড়ি চাঁপাইনবাবগঞ্জ । দিনের অধিকাংশ সময় বিচরণ করেন রাজধানী ঢাকার বিভিন্ন এলাকায়। বাড়ি ফিরে দুমুঠো ভাত খেয়ে পিঠ পেতে বিশ্রাম নেওয়ার সুযোগ হয়ে উঠে না। মেস কিংবা ফ্যামিলি বাসায় থাকেন না তিনি। এমনকি কোনো বস্তিতেও নয়। খাওয়া-দাওয়া

বিস্তারিত

সংবাদপত্রে সংযোগ

Scroll to Top